ঢাকা, বুধবার, ৮ কার্তিক ১৪২৫, ২৪ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে : বি চৌধুরী

মোহাম্মদ নঈমুদ্দীন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-৩০ ৯:৫৫:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১৪ ১১:৩৬:১৩ এএম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, যদি আবার অপশাসন ফিরে আসে তাহলে দেশের গণতন্ত্রের সর্বনাশ হয়ে যাবে। এজন্য আমরা ঐক্যের ডাক দিয়েছি। কোনো হুমকিতে কাজ হবে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। জনগণকে ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে।

বিকল্পধারা বাংলাদেশের সহযোগী সংগঠন প্রজন্ম বাংলাদেশের উদ্যোগে রোববার  সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানী চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে আয়োজিত ছাত্র-যুব সমাবেশ ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রজন্ম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও বিকল্প যুবধারার সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাচ্চুর সঞ্চালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, প্রাক্তন সংসদ সদস্য শহীদুল হক জামাল ও অধ্যক্ষ আবদুর রশিদ খান বক্তব্য রাখেন।

বি চৌধুরী বলেন, ক্ষমতার রাজনীতি বন্ধ করুন। দেশের মানুষের দায়িত্ব গ্রহণ করুন। ভোটারদের দায়িত্ব গ্রহণ করুন। তাদের দুঃখ ঘোচানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু আপনারা দায়িত্ববোধ প্রমাণ করতে পারেননি। নিজেরা যা খুশি বলবেন, অন্যদলের কাউকে কথা বলতে দেবেন না, এ কেমন গণতন্ত্র? এ ধরনের অবস্থা অগণতান্ত্রিক। এটা অপশাসন। এটা চলতে পারে না।

সরকারের সমালোচনা করে বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট বলেন, নিজেরা যখন খুশি যেখানে সেখানে সভা-সমাবেশ করবেন, অন্যদের করতে দেবেন না, গাড়ি আটকে দেবেন, কথা বলতে দেবেন না- দিস ইজ নট ডেমোক্রেসি। এটা জনগণের সাথে প্রতারণা।

তিনি বলেন, এটা ব্রিটিশ আমল নয়, পাকিস্তান আমল নয় যে, আপনারা ক্ষমতা দেখাবেন। শুধ মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী নয়- ইউনিয়ন নেতাদের ক্ষমতার দাপটে মানুষ অসহায়। এসব তারা সহ্য করতে পারছে না। জনগণ কোনোদিন ভাবে নাই এমন অত্যাচারী, জালিম সরকার আসবে।

অতীতে সংবিধান সংশোধন করে কীভাবে নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হয় তার দৃষ্টান্ত রয়েছে, উল্লেখ করে প্রাক্তন এই রাষ্ট্রপতি বলেন, আমরা রাতে সংসদ ডেকে সংবিধান সংশোধন করেছি।

বি চৌধুরী বলেন, তারা বলে, উন্নয়ন দেব, গণতন্ত্র দেব না। এটা কী? গণতন্ত্রের কবর রচনা করে উন্নয়ন নয়। উন্নয়ন ও গণতন্ত্র একসাথে চলতে হবে। উন্নয়নও হবে গণতন্ত্রও থাকবে।

তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, এ সরকার জনগণের ঐক্যের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে। তারা বলছে, ঐক্য হতে দেওয়া যাবে না। মানে কী? আপনারা প্রতিরোধ করবেন? এটা সরকারের ভাষা?  রাষ্ট্রের ভাষা? আমরা আপনাদের কথা ফেরত দিলাম। আর কখনো এ ভাষায় কথা বলবেন না।

মেজর (অব:) আবদুল মান্নান বলেন, সঠিক নির্বাচনের মাধ্যমে সঠিক গণতন্ত্র উপহার দিতে হবে। এজন্য আমরা সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত।

প্রজন্ম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাহী বি চৌধুরী বলেন, ১৫১ আসন পাওয়ার পর বিএনপির চেহারা দেখেছি। ওই চেহারা আর দেখতে চাই না। ভয় দেখিয়ে কোনো ঐক্য করা যাবে না। মুখে বলবেন এক কথা, কাজে আরেক, হবে না। আমরা ভারসাম্যের রাজনীতি ও সরকার চাই। এককেন্দ্রিক সরকার আর নয়।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮/নঈমুদ্দীন/রফিক

Walton Laptop
 
     
Walton